NotunBlog
নতুনBlog » ইউটিউব » ইউটিউব হতে অর্থ উপার্জন – ৫ম পর্ব

ইউটিউব হতে অর্থ উপার্জন – ৫ম পর্ব

পূর্ববর্তী পোষ্টে আপনারা ইউটিউব এড কত প্রকার ও কি কি তা জানতে পেরেছেন। যারা পূর্বের পোষ্ট দেখেন নি তারা সেটি দেখে নিন

এক নজরেঃ

আজকের পোষ্টে আপনারা ইউটিউবের বিভিন্ন প্রকার এড এর মূল্য, কোন এড আপনার জন্য ভাল/লাভজনক, আপনার ভিডিওতে সর্বোচ্চ কয়টি এড দিবেন, CPM ও CPC কি এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

ইউটিউব এড

যেমনটা আপনারা আগের পোষ্টে জানতে পেরেছেন, ইউটিউব এড মূলত ৮ প্রকার। এখন নিশ্চয় সবার মনে প্রশ্ন জেগেছে যে এ ৮ প্রকার এড এর মূল্য কত। ইউটিউবে যে ৮ প্রকার এর এড রয়েছে তাদের প্রত্যেকেরই স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য রয়েছে যার ফলে এ এডগুলোর মূ্ল্যও কিন্তু একে অপরের থেকে ভিন্ন।

ইউটিউব এড এর মূল্য

সবসময় অনেকেই প্রশ্ন করে থাকেন যে, ইউটিউবের এডগুলোর রেট বা মূল্য কত। এখানে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল যে, ইউটিউব এড এর মূল্য সম্পর্কে কেউ কখন সঠিকভাবে বলতে পারবেনা কারণ ইউটিউব এড এর মূল্য প্রতিনিয়ত পরিবর্তনশীল। এড এর মূল্য সবসময় সমান থাকে না।এর ফলে ইউটিউবারদের আয়ও একেক মাসে একেক রকম হয়ে থাকে।

ইউটিউব এড এর মূল্য বেশ কিছু বিষয়ের উপর নির্ভর করে। এগুলো হল –

  1. এডভার্টাইজাররা প্রতি ১০০০ ভিউর জন্য কত $ হারে এড দিতে প্রস্তুত
  2. ভিউয়ারদের লোকেশন
  3. ভিউয়ারদের কোন ধরণের এড দেখানো হচ্ছে

সাধারণভাবে, এডভার্টাইজাররা Google AdSense এর কাছে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থের বিনিময়ে এডভার্টাইজমেন্ট প্রদান করে।আগেও বলেছিলাম যে, ইউটিউব নিজে কোনো এড সংগ্রহ করে না বরং গুগল এডসেন্স এর কাছ থেকে এড সংগ্রহ করে তা আপনার আপলোডকৃত ভিডিওতে প্রদর্শন করে ইউটিউব। কারণ, ইউটিউব হল ভিডিও দেখার ওয়েবসাইট, এড সংগ্রহের প্লাটফর্ম নয়। কিন্তু গুগল এডসেন্স হল এড সংগ্রহের প্লাটফর্ম। তাই ইউটিউব গুগল এডসেন্স এর কাছ থেকে এড সংগ্রহ করে তা মোনেটাইজড করা ভিডিওতে প্রদর্শন করে।

এডভার্টাইজাররা গুগল এডসেন্স এর নিকট তাদের এডগুলো অর্থের বিনিময়ে প্রদান করে থাকে। এডভার্টাইজাররা যদি বেশি পরিমাণ অর্থের বিনিময়ে এডসেন্সে তাদের এড দিয়ে থাকে(যেমন – ৫$/১০০০ ভিউ) তাহলে এডসেন্স এ অর্থ থেকে কিছু পরিমাণ কেটে রেখে বাকিগুলো আপনাকে প্রদান করবে।

অর্থাৎ, এডভার্টাইজাররা এডসেন্স এর কাছে যত বেশি অর্থ প্রদান করবে আপনারাও তত বেশি অর্থ পাবেন। কিন্তু এডভার্টাইজাররা যদি অল্প পরিমাণ অর্থের বিনিময়ে এডসেন্সকে এড দিয়ে থাকে তাহলে আপনিও কম অর্থ পাবেন।

সাধারণভাবে, উন্নত দেশ(যেমন – যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য) প্রভৃতি দেশে এডভার্টাইজাররা এড এর জন্য সবচেয়ে বেশি অর্থ প্রদান করে থাকে। ফলে, এসব দেশের ইউটিউবাররা সবচেয়ে বেশি আয় করে থাকে। পক্ষান্তরে, উন্নয়নশীল দেশে(যেমন – ভারত, বাংলাদেশ, নেপাল) প্রভৃতি দেশে এডভার্টাইজাররা এড এর জন্য সবচেয়ে কম অর্থ প্রদান করে। ফলে এসব দেশের ইউটিউবাররা কম আয় করে থাকে কিন্তু চ্যানেল যদি জনপ্রিয় হয় এবং খুব বেশি পরিমাণে ভিডিও ভিউ হয় তাহলে উন্নয়নশীল দেশের ইউটিউবাররাও খুব ভাল পরিমাণে আয় করতে পারবে।

আপনি আপনার ভিডিওতে প্রদর্শিত এড থেকে কত পরিমাণ আয় করতে পারবেন তা আরও একটি বিষয়ের উপর নির্ভর করে আর তা হল ভিউয়ারদের লোকেশন। এডভার্টাইজাররা যখন এডসেন্সের নিকট তাদের এডগুলো দিয়ে থাকে তখন এডভার্টাইজাররা একটি সুবিধা পেয়ে থাকে এডসেন্সের কাছ থেকে। সুবিধাটি হল এড এর লোকেশন নির্ধারণ করে দেয়া।

অর্থাৎ এডভার্টাইজারের এডগুলো কোন কোন দেশে ভিউ হবে তা নির্ধারণ করে দেয়া। অর্থাৎ আপনার ভিডিওর ভিউয়ারদের জন্য যে ধরণের এড দেখার অনুমতি এডভার্টাইজাররা দিয়েছেন ভিউয়াররা শুধুমাত্র সে এডগুলোই দেখতে পারবে।

উদাহরণের সাহায্যে বলা যাক, ধরুন যুক্তরাষ্ট্রের কোনো এডভার্টাইজার এডসেন্স কে বললো যে তিনি তার এড সকল ভিউয়ার কিংবা যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের ভিউয়ার কিংবা শুধু বাংলাদেশের ভিউয়ারদের জন্য উন্মুক্ত রাখতে চান, তাহলে বাংলাদেশি ভিউয়াররা এ এড আপনার ভিডিওতে দেখতে পাবেন। আর যেহেতু যুক্তরাষ্ট্রের এডভার্টাইজাররা সবচেয়ে বেশি পরিমাণ অর্থ প্রদান করেন এড এর জন্য তাই আপনার আয় বেশি হবে। কিন্তু বাংলাদদেশি এডভার্টাইজাররা এড এর জন্য কম অর্থ প্রদান করে তাই যখন বাংলাদেশ থেকে কোনো ভিউয়ার আপনার ভিডিওতে দেয়া এড দেখবে তখন আপনার কম আয় হবে। আবার আপনার ভিডিও যদি ইংরেজি কন্টেন্টে হয়ে থাকে আর সে ভিডিও যদি উন্নত দেশের ভিউয়াররা দেখে থাকে তাহলে আপনার আয় বেশি হবে কেননা তখন ঐসব দেশের ভিউয়াররা তাদের দেশের এড দেখবে যেগুলোর জন্য ঐসকল দেশের এডভার্টাইজাররা এডসেন্স কে বেশি অর্থ প্রদান করছে।

মোট কথা, আপনি আপনার চ্যানেল থেকে এড এর মাধ্যমে কি পরিমাণ আয় করবেন তা আপনার কন্টেন্ট ভিউয়ারদের লোকেশন এর উপর নির্ভর করে।

আবার আপনি আপনার ভিডিওতে কোন ধরণের এড চালু রেখেছেন তার উপরও আপনার আয় নির্ভর করে।পূর্ববর্তী পোষ্টে যেমনটা বলেছিলাম, ইউটিউব এড ৮ প্রকার। এ ৮ প্রকার এড এর মুল্যও ৮ রকমের হয়ে থাকে। যেমন Display ads এর মুল্য অন্য যেকোনো এড এর তুলনায় কম।

আবার Overlay ad এর মূল্য Display ads এর তুলনায় বেশি কেননা ভিউয়ারকে এড দেখার জন্য এড এ ক্লিক করতে হয়। কিন্তু ভিউয়াররা চাইলে এড এ ক্রস চিহ্নে ক্লিক করে এডটি কেটে দিতে পারেন অর্থাৎ ভিউয়ারদের এডটি দেখার কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। ফলে ভিউয়ার যদি এড এ ক্লিক না করে এডটি কেটে দেন তাহলে আপনার কোনো আয় হবে না।

পক্ষান্তরে Skippable video ad হল এমন একটি এড যেটি খুবই জনপ্রিয় এবং এর মূল্যও অনেক বেশি। এ এড ৫ সেকেন্ড দেখার পর ভিউয়াররা skip করতে পারেন। কিন্তু এ ধরণের এড এর জন্য আপনাকে তখনই পে করা হবে যখন ভিউয়ার এডটি ৩০ সেকেন্ড পর্যন্ত কিংবা সম্পূর্ণ দেখবে। ভিউয়ার যদি ৫ সেকেন্ড দেখার পর এডটি স্কিপ করেন তাহলে আপনাকে পে করা হবে না।

আবার Non-skippable video ad এর মূল্যও স্কিপেবল ভিডিও এড এর মত বেশি। এ এড স্কিপ করার কোন অপশন থাকে না এবং এ এড সম্পুর্ণ না দেখলে ভিউয়াররা কন্টেন্ট দেখতে পারেন না। তাই এ এড আপনার ভিডিওতে সংযুক্ত করলে আপনার আয় বেশি হবে। যদি ভিউয়ার এড এর জন্য বিরক্ত হয়ে আপনার ভিডিওটি না দেখেন তাহলে আপনার আয় হবে না।

তাছাড়া আপনি আপনার ভিডিওতে যুক্ত করতে পারেন Bumper ad ও Midroll ad। বাম্পার এড ৬ সেকেন্ড দীর্ঘ নন-স্কিপেবল এড হওয়ায় আপনার আয় একটু বেশি হবে কারণ নন-স্কিপেবল এড এর মূল্য সবচেয়ে বেশি। আবার মিডরোল এড ২ প্রকার – স্কিপেবল এড ও নন-স্কিপেবল এড। তাই এ ধরণের এড থেকেও আপনার আয় অনেক বেশি হবে।

কোন ধরণের এড আপনার জন্য ভাল/লাভজনক

দেখুন কোন ধরণের এড আপনার জন্য ভাল/লাভজনক তা পুরোপুরি নির্ভর করে আপনি আপনার চ্যানেলে কোন ধরণের ভিডিও আপলোড করবেন তার উপর। আপনার ভিডিওটি যদি ১০ মিনিটের কম সময়ের হয়ে থাকে তাহলে আপনার জন্য ডিসপ্লে এড, ওভারলে এড, স্কিপেবল এড ও নন-স্কিপেবল এড প্রভৃতি উপযুক্ত। আবার আপনার ভিডিও যদি ১০+ মিনিটের হয়ে থাকে তাহলে আপনার জন্য ডিসপ্লে এড, ওভারলে এড, মিডরোল এড ও বাম্পার এড উপযুক্ত।

আপনার ভিডিওতে সর্বোচ্চ কয়টি এড দিবেন

ইউটিউব থেকে আপনার আয় হবে এড এর মাধ্যমে। আপনি আপনার ভিডিওতে যত বেশি এড দিবেন আপনার আয়ও তত বেশি হবে। কিন্তু এতে আপনার ভিউয়াররা বিরক্তিবোধ করবে যার ফলে তারা ভবিষ্যতে আপনার ভিডিওগুলো নাও দেখতে পারে। ভিউয়ার না পেলে এতে আপনারই লস। তাই আপনি আপনার ভিডিওতে যতটুকু সম্ভব কম এড যুক্ত করবেন। আপনার ভিডিওটি যদি ১০ মিনিট বা তার কম সময়র হয়ে থাকে তাহলে আপনি ডিসপ্লে এড, ওভারলে এড, স্কিপেবল এড ও নন-স্কিপেবল এড এ ৪টি এড থেকে যেকোনো ২টি এড আপনার ভিডিওতে যুক্ত করবেন। আবার আপনার ভিডিও যদি ১০+ মিনিটের হয়ে থাকে তাহলে আপনি আপনার জন্য ডিসপ্লে এড, ওভারলে এড, মিডরোল এড ও বাম্পার এড এ ৪টি এড থেকে যেকোনো ২টি এড আপনার ভিডিওতে যুক্ত করবেন। আর আপনার ভিডিও যদি ১+ ঘন্টা দীর্ঘ হয়ে থাকে তাহলে আপনি ৩-৪ টি এড দিতে পারেন। যেসকল ইউটিউবাররা ইউটিউবে ১+ ঘন্টা দীর্ঘ ভিডিও আপলোড করে থাকে তারা ভিডিওতে ডিসপ্লে এড, ওভারলে এড, মিডরোল এড ও বাম্পার এড এ ৪টি এড দিয়ে থাকে।

Native mobile ads সম্পর্কে কিছু কথা

পূর্ববর্তী পোষ্টে বলেছিলাম যে, ইউটিউবে যে ৮ প্রকার এড রয়েছে তার মধ্যে একটি হল Native mobile ad ।কিন্তু এ অপশনটা শুধুমাত্র হাতেগোনা কয়েকজন জনপ্রিয় ইউটিউবারদের জন্যই প্রযোজ্য।এ অপশনটা আপনারা ইউটিউবে পাবেন না যতক্ষণ না পর্যন্ত আপনার চ্যানেলটি ১ম সারির জনপ্রিয় চ্যানেলগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে। কারণ, ইউটিউবে নেটিভ মোবাইল এড অপশনটি সবার জন্য উন্মুক্ত নয়। শুধুমাত্র জনপ্রিয় চ্যানেলগুলো যেগুলোতে প্রচুর পরিমাণে ভিডিও ভিউ হয়, শুধুমাত্র সে চ্যানেলগুলোর জন্যে এ ধরণের এড ব্যবস্থা চালু রেখেছে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ।

আজকের পোষ্টে CPM ও CPC কি তা আপনাদের জানানোর কথা ছিল। কিন্তু সময়ের স্বল্পতার কারণে আজকে আর CPM ও CPC স্বম্বন্ধে আলোচনা করা গেল না। পরবর্তী পোষ্টে অবশ্যই CPM ও CPC কি তা আলোচনা করা হবে। আমাদের সাথেই থাকবেন।

মন্তব্য করুন

সংযুক্ত থাকুন​

সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে আমাদের সাথে যুক্ত হয়ে সকল আপডেট গুলো সবার আগে পান!

Donec ut Curabitur pulvinar id, Phasellus ut fringilla non ultricies suscipit