পূর্বে মঙ্গল গ্রহের নিচে ছিল একাধিক হ্রদ

অতীতে মঙ্গল গ্রহে বিপুল পরিমান জল ছিল। সম্প্রতি আমেরিকা ও ইউরোপের মহাকাশ যান থেকে তোলা ছবি দেখে এই কথা জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

নাসা ও ইসএ এর সংগ্রহ করা তথ্য থেকে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন ,

“এক সময় মঙ্গল গ্রহে মাটির নীচে অনেকটা জল ছিল। ইটালি ও নেদারল্যান্ডে প্রকাশিত এক গবেষণা রিপোর্টে এই তথ্য প্রকাশিত হয়েছে।”

মঙ্গল

এই গবেষণা দলের সাথে যুক্তি অন্যতম বিজ্ঞানী ফ্রান্সেস্কো সালেসি জানিয়েছেন,

মঙ্গল গ্রহে মাটির নীচে ছিল একাধিক হ্রদ। একে অপরের সাথে যুক্ত ছিল হ্রদগুলি।

ফ্রান্সেস্কো সালেসি

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন পৃথিবীতে ঠিক যে পরিস্থিতির জন্য প্রাণের সূত্রপাত হয়ত প্রতিবেশী গ্রহে হয়তো ঠিক একই রকম পরিস্থিতি তৈরী হয়েছিল। এর আগে অন্য এক গবেষণায় বিজ্ঞানীরা মঙ্গল পৃষ্ঠে বরফের সন্ধান পেয়েছিলেন।

বিশেষ করে মঙ্গল গ্রহের উত্তর গোলার্ধে এই জলের অস্তিত্ব পাওয়া গিয়েছে। একাধিক হ্রদের মধ্যে যোগাযোগ স্থাপনকারী খালের মাধ্যমে জল প্রবাহিত হত বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

মঙ্গল জীবন

বর্তমান গবেষণায় এটি প্রতীয়মান হয়েছে যে, গ্রহীয় বাসযোগ্যতা তথা একটি গ্রহে প্রাণের বিকাশ ঘটার সম্ভবনার পরিমাণ বহুলাংশে এর পৃষ্ঠতলে পানির অস্তিত্বের উপর নির্ভর করে। এই শর্তটি পূর্ণ করার জন্য গ্রহটিকে অবশ্যই বাসযোগ্য অঞ্চলে থাকতে হবে। বর্তমানে সূর্যের বাসযোগ্য অঞ্চলের ভিতর পৃথিবী অবস্থান করছে। কিন্তু মঙ্গল গ্রহ এই অঞ্চল থেকে মাত্র অর্ধেক জ্যোতির্বৈজ্ঞানিক একক দূরে অবস্থিত। এ কারণে এর পৃষ্ঠতলের সব পানি জমে যায় এরকম ধারণা পূর্বে থাকলেও ২৮শে সেপ্টেম্বর ২০১৫ তে , নাসা তাদের ওয়েবসাইটে ঘোষণা দেয় মঙ্গলে তরল পানি প্রবাহের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। 

সূত্রঃ এনডিটিভি এবংউইকিপিডিয়া

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।